Friday , August 17 2018
Home / Health care / ৬ লক্ষণ যা বলে দেবে ভুল রাস্তায় হাঁটছেন আপনি

৬ লক্ষণ যা বলে দেবে ভুল রাস্তায় হাঁটছেন আপনি

৬ লক্ষণ যা বলে দেবে  ভুল রাস্তায় হাঁটছেন আপনি
৬ লক্ষণ যা বলে দেবে ভুল রাস্তায় হাঁটছেন আপনি

প্রাচীনকাল থেকে এক বিশ্বাস চালু আছে যে আমাদের চারপাশে যা ঘটে তা মহাজাগতিক নিয়মে। এমনকি আমাদের সঙ্গে খারাপ কিছু ঘটলেও নাকি সংকেত দেয় এই মহাজাগতিক নিয়ম। এমনই কিছু সাবধানবাণী যা নাকি আসলে মহাজাগতিক সংকেত। আপনি

অতি ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ভেঙে যাওয়া :
প্রিয় কোনো জিনিস ভেঙে ফেলা বা একের পর এক ঘনিষ্ঠজনের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতিও কিন্তু আপনার পক্ষে সাবধান হওয়ার সংকেত হতে পারে। এটা নাকি আসলে মহাবিশ্বের সাবধানবাণী। এর মানে আপনি এমন এক রাস্তায় চলেছেন যেখানে এমনসব ঘটনা ঘটেই যাবে। এই পরিস্থিতি থেকে বেরনোর আদর্শ উপায় হলো সাবধানে প্রিয় জিনিসগুলো ব্যবহার করা এবং ঘনিষ্ঠজনরা আপনার সম্পর্কে কী বলছে তা শোনা। আর দরকার ঠাণ্ডা মাথায় আত্মবিশ্লেষণ।

ঘন ঘন আঘাত পাওয়া :
উল্টো-পাল্টা জায়গা আঘাত পাওয়া। কখনও কনুইয়ে জোর গুঁতো খাচ্ছেন তো পরক্ষণেই পায়ের আঙুলে আঘাত পেলেন। এটা আসলে মহাবিশ্বের সংকেত যা আপনাকে সাবধান করার জন্য। ঘনঘন এমন আঘাত পেলে চলাফেরায় দ্রুততা কমান। শান্ত মাথায় ভাবুন। কিন্তু, ধীরে-সুস্থে চলাফেরা করুন।

মহাবিশ্বের সাবধানবাণী :
একই খারাপ জিনিস বারবার ঘটতে থাকবে। মনে হতেই পারে ভাগ্যটা কী খারাপ, একই জিনিস বারবার ঘটে যাচ্ছে। কিন্তু, একটু ঠাণ্ডা মাথায় চিন্তা করুন। কারণ, একই খারাপ জিনিস যখন বারবার ঘটে যায় তার মানে এটা মহাবিশ্বের সাবধানবাণী। আপনার সিদ্ধান্ত নিতে বা যে পরিস্থিতিতে বিচরণ করছেন তাতে কোনো সমস্যা আছে। মহাজাগতিক বিশ্ব হয়তো আপনাকে সাবধান করার চেষ্টা করছে যে আপনি আপনার পথে হাঁটছেন না।

৬ লক্ষণ যা বলে দেবে  ভুল রাস্তায় হাঁটছেন আপনি

ভুলে যাওয়ার প্রবণতা বাড়া :
ঠিক করে খেয়াল রাখতে পারছেন না। সবসময়ই কিছু না কিছু ভুলে যাচ্ছেন। কী করবেন বুঝতে পারছেন না। বড় জিনিস মানুষ খুব সহজেই মনে রাখতে পারে। কিন্তু, সমস্যা হয় ছোট জিনিস খেয়াল রাখা নিয়ে। এই প্রবণতাকে হাল্কাভাবে নেবেন না। কারণ, এর মানে আপনার নিজের মধ্যে মনসংযোগের কোনো সমস্যা হচ্ছে।

রোজ কোনো না-কোনো কাজে দেরি হওয়া :
এমন স্বভাবের বশবর্তী হলে ভেবে দেখুন। কারণ, এটা মহাবিশ্বের সাবধান সংকেত। কেন বার বার এমন হচ্ছে? ভেবে দেখুন। সব কাজেই দেরি করে ফেলা আপনার ভাবমূর্তিতে কালো ছাপ ফেলতে পারে। তাই বলে এমন তাড়াহুড়ো করবেন না যাতে পাগল পাগল লাগে। স্বাভাবিক গতিতে কাজ করুন। আর চেষ্টা করুন সঠিক সময়ে সঠিক জায়গায় পৌঁছতে।

চারপাশের পরিবেশে তিতিবিরক্ত হয়ে পড়া :
মনের মতো পরিবেশ নেই। মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছেন। বেরিয়ে আসতে চাইছেন এমন পরিবেশ থেকে, কিন্তু পারছেন না। আসলে এটা হল মহাবিশ্বের সংকেত, যেটা বলার চেষ্টা করছে আপনি যে পথে রয়েছেন সেটা আসলে ভুল। এর প্রভাব সবচেয়ে বেশি পড়ে মনের উপরে। তাই এই পরিস্থিতিতে বেরিয়ে আসার জন্য মানসিকভাবে নিজেকে শক্তিশালী করাটা জরুরি।আপনি আপনি আপনি আপনি আপনি

god sex truth

About admin

Check Also

মূত্রনালির কিছু সমস্যা ও সমাধান,,জেনে নিন

শরীর থেকে বর্জ্য নিঃসরণ কিডনি ও মূত্রতন্ত্রের মূল কাজ। শরীরে পানি ও লবণের মাত্রা নিয়ন্ত্রণেও ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *