Tuesday , June 19 2018
Home / Women's health / কিছু ঘরোয়া উপায় ,মাসিকের ব্যাথা উপশমের

কিছু ঘরোয়া উপায় ,মাসিকের ব্যাথা উপশমের

কিছু ঘরোয়া উপায় মাসিকের ব্যাথা উপশমের

মাসিকের ব্যাথা উপশমের কিছু ঘরোয়া উপায়
প্রতিমাসের মাসিকের ব্যাথার ভয় কি আপনাকে শংকিত করে ? মাসিকের প্রথম দিনের ব্যাথা সহ্য করা আপনাকে শিখতে হবে । বেশিরভাগক্ষেত্রেই বলা হয় নারী হবার জন্য এটুকু মূল্য দিতেই হবে !

আপনার যা হয় তা হলো ‘ডিসমেনরিয়া’ এবং এটি আপনার কল্পনা নয় । পরিসংখ্যান এ দেখা গেছে তিন-চতুর্থাংশ কিশোরী এবং এক-চতুর্থাংশ মহিলার এ ধরনের সমস্যা হয় । প্রতি ৫ জনের ১ জন এত তীব্র ব্যাথা অনুভব করেন যে তাদের দৈনন্দিন কাজকর্ম ব্যহত হয় ।
ব্যাথাটি কোমড়ের কাছ থেকে শুরু হয়ে পায়ের হাঁটু অবধি নামতে পারে । রক্তপাতের সাথে সাথে এটি শুরু হয় এবং ১২-২৪ ঘন্টা পর্যন্ত থাকতে পারে । জরায়ু ক্রমশ সংকচনের ফলে জরায়ুর শিরা উপশিরার অক্সিজেনের অভাব হয়, অক্সিজেনের ঘাটতি পুরনের জন্য জরায়ু এক ধরনের কেমিকেল নিঃসরন করে যা ব্যাথার উৎপন্ন করে । অতিরিক্ত রক্তপাত ব্যাথা বাড়াতে পারে,বয়স বাড়ার সাথে সাথে অবস্থার উন্নতি ঘটে । অনেক মহিলার ক্ষেত্রে সন্তান প্রসবের পর অবস্থার উন্নতি হতে দেখা যায় ।

যদিও অক্সিজেনের ঘাটতি এ সমস্যার প্রধান কারন,এছাড়া আরো কিছু কারন রয়েছে । ‘ফাইব্রয়েড’,এক ধরনের জরায়ুর টিউমার (যা থেকে ক্যান্সারের কোন সম্ভাবনা নেই) একটি কারন । ‘এন্ডোমেট্রিওসিস’ এক ধরনের রোগ যার কারনে জরায়ু কোষের মত কোষ শরীরের অন্যত্র উৎপ্নন হয়,সাধারনত জরায়ুনালী এবং ডিম্ববাশয়ে । যখন এই কোষগুলো ঝরে পড়ে তখন তীব্র ব্যাথা অনুভূত হয় । অনিয়মিত জন্মনিরোধক বড়ি সেবনের কারনেও ব্যাথা হতে পারে ।

কারন যাই হোক না কেন,আপনি চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহন করুন । ব্যাথার সাথে আরো কোন অসুবিধা আছে কিনা সেটা চিহ্নিত করুন,যেমন অনিয়মিত মাসিক,মাসিকের মধ্যবর্তি সময়ে রক্তপাত,যোনিপথে দূর্গন্ধযুক্ত তরল আসা,সহবাসের সময় ব্যাথা । মাসিকের সাথে অন্য কোন সমস্যা থাকলে মাসিক অনিয়মিত হবে এবং বেশিদিন পর্যন্ত থাকবে ।

যখন এটা নিশ্চিত হবেন যে মাসিকের ব্যাথার অন্য কোন কারন নেই তখন আপনি ব্যাথা কমানোর কিছু সধারন উপায় গ্রহন করুন । কতিপয় ঘরোয়া উপায়,খাদ্যাভাস পরিবর্তন,হালকা ব্যায়াম বেশ কার্যকরী ।

নানি দাদীর পদ্ধতি দিয়ে শুরু করুন । তলপেটে একটি গরম পানির বোতল বা ‘হট ওয়াটার ব্যাগ’ রাখুন । এতে আপনার রক্তনালী প্রসারিত হবে,রক্তসঞ্চালন বাড়বে । কাপড় গরম করে তলপেটে রাখলেও একই কাজ করবে ।তেল গরম করে তলপেট আর কোমড়ে মালিশ করলেও আরাম পাওয়া যাবে । বিশ্রাম নেবার সময় পাশ ফিরে হাঁটু ভাজ করে শোয়া ভাল ।

গরম কোন পানীয়,গাজর বা শশার রস পান করলে উপকার পাওয়া যাবে । এতে ‘অ্যান্টি- অক্সিডেন্টস’ থাকে যা শরীরের দূষিত পদার্থ বের করতে সহায়তা করে । আদা গরম পানিতে ফুটিয়ে নিয়মিত পান করলে উপকার পাওয়া যায় । অথবা ধনে পাতা পানিতে ফুটিয়ে ঠান্ডা করে খেয়ে দেখতে পারেন । ‘মিন্ট চুইংগাম’ ও উপকারী । চিনির বদলে মধু খান এবং খাবারের উপর দিরুচিনি গুড়া ছড়িয়ে নিন ।

তেল-চর্বি যুক্ত খাওয়া বর্জন করুন,পানি বেশি পান করুন এবং প্রতি ২ ঘন্টায় প্রস্রাব করুন । কারন ভরা মূত্রথলি তলপেটে চাপ দিয়ে ব্যাথা বৃদ্ধি করতে পারে ।

যদিও মাসিকের সময় ব্যায়াম করা অনেকেই পছন্দ করেন না,তবুও হাল্কা ব্যায়াম,হাঁটা,সাইকেল চালানো,যোগব্যায়াম করা উপকারী ।
আইবুপ্রফেন,ট্রামাডল,আসপিরিন জাতীয় ওষুধ আপনি খেতে পারেন । কাজ না হলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী নাপ্রক্সেন,মেফেনামিক এসিড, প্রিমসন অয়েল অথবা হরমোন থেরাপীতে যেতে পারেন ।

শুধু মাসিকের সময়ই নয়, সারা বছর জুড়েই কর্মক্ষম থাকা এবং পরিমিত খাবার খাওয়া সবথেকে ভাল সমাধান ।

god sex truth

About admin

Check Also

মাত্র ১ রাতে উজ্জ্বল ও ফর্সা ত্বক !

নিজের ত্বক কে এবার এক রাতেই আগের চেয়ে অনেক ফর্সা এবং উজ্জল করতে পারবেন। আগামীকাল ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *