Home / অনান্য / শ্রীপুরে শিক্ষকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে স্কুলছাত্রীর অনশন

শ্রীপুরে শিক্ষকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে স্কুলছাত্রীর অনশন

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার দ্বারিয়াপুর গ্রামের এক স্কুলছাত্রী বিয়ের দাবিতে দুইদিন ধরে শিক্ষকের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে অনশন করছে। রোববার সন্ধ্যায় ছাত্রীটি শিক্ষকের বাড়িতে যাওয়ার পরপরই পরিবারের লোকজন ঘরে তালা ঝুলিয়ে পালিয়ে গেছে।

ওই স্কুল ছাত্রী জানায়, ছোটবেলা থেকে সে দ্বারিয়াপুর গ্রামে নানা বাড়িতে থাকে। বর্তমানে সে দ্বারিয়াপুর সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণিতে অধ্যায়ন করছে। ওই গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক আমজাদ হোসেনের ছেলে আরিফুল ইসলামের (২৮) কাছে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে তার সঙ্গে প্রেম ও শারীরিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে।এক পর্যায়ে গত ২৭ সেপ্টেম্বর বিয়ের কথা তাকে নানা বাড়ি থেকে ফরিদপুর জেলার মধুখালী উপজেলার ডুমাইন গ্রামে এক বাড়িতে নিয়ে যান আরিফুল। সেখানে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস শুরু করেন। এ সময় আরিফুলকে বার বার বিয়ের কথা বললেও তিনি এড়িয়ে যান । পরে গত রোববার সকালে কাজির বাড়িতে যাওয়ার কথা বলে তাকে মধুখালী উপজেলার কামারখালী এলাকায় গড়াই সেতু টোল ঘরের পাশে রেখে পালিয়ে যান আরিফুল। পরে কোন উপায় খুঁজে না পেয়ে সন্ধ্যায় বিয়ের দাবিতে আরিফুলের বাড়িতে গিয়ে অবস্থান নেয় সে।

স্থানীয়রা জানান, দুইদিন না খেয়ে থেকে মেয়েটি অসুস্থ হয়ে পড়েছে। পরে সোমবার বিকেলে মেয়েটির পরিবারের সদস্যরা শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানান। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিলারা রহমান শ্রীপুর থানার ওসিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।

শ্রীপুর থানার ওসি মোঃ মাহাবুবুর রহমান জানান, তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পেয়ে সোমবার সন্ধ্যায় মাগুরা পুলিশ সুপারকে বিষয়টি অবহিত করেছেন । পুলিশ সুপার খান মুহাম্মদ রেজোয়ান মঙ্গলবার মেয়েটি ও ওই শিক্ষকসহ দুই পরিবারের সদস্যদের তার কার্যালয়ে হাজির করার নির্দেশ দিয়েছেন।

 

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার দ্বারিয়াপুর গ্রামের এক স্কুলছাত্রী বিয়ের দাবিতে দুইদিন ধরে শিক্ষকের বাড়িতে অবস্থান নিয়ে অনশন করছে। রোববার সন্ধ্যায় ছাত্রীটি শিক্ষকের বাড়িতে যাওয়ার পরপরই পরিবারের লোকজন ঘরে তালা ঝুলিয়ে পালিয়ে গেছে।

ওই স্কুল ছাত্রী জানায়, ছোটবেলা থেকে সে দ্বারিয়াপুর গ্রামে নানা বাড়িতে থাকে। বর্তমানে সে দ্বারিয়াপুর সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণিতে অধ্যায়ন করছে। ওই গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক আমজাদ হোসেনের ছেলে আরিফুল ইসলামের (২৮) কাছে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে তার সঙ্গে প্রেম ও শারীরিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে।এক পর্যায়ে গত ২৭ সেপ্টেম্বর বিয়ের কথা তাকে নানা বাড়ি থেকে ফরিদপুর জেলার মধুখালী উপজেলার ডুমাইন গ্রামে এক বাড়িতে নিয়ে যান আরিফুল। সেখানে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস শুরু করেন। এ সময় আরিফুলকে বার বার বিয়ের কথা বললেও তিনি এড়িয়ে যান । পরে গত রোববার সকালে কাজির বাড়িতে যাওয়ার কথা বলে তাকে মধুখালী উপজেলার কামারখালী এলাকায় গড়াই সেতু টোল ঘরের পাশে রেখে পালিয়ে যান আরিফুল। পরে কোন উপায় খুঁজে না পেয়ে সন্ধ্যায় বিয়ের দাবিতে আরিফুলের বাড়িতে গিয়ে অবস্থান নেয় সে।

About admin

Check Also

অবশেষে নির্ধারিত হলো ডাকসু নির্বাচনের সময়

চলতি বছরের অক্টোবরে ভোটার তালিকা প্রণয়ন ও ২০১৯ সালের মার্চের মধ্যে ডাকসু নির্বাচন করা হবে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *