Tuesday , 25 June 2024

যৌনতায় স্বামীকে খুশি করতে স্ত্রীদের যা করতে হবে

অধিকাংশ পুরুষের অভিযোগ তাদের স্ত্রী তাদের সন্তুষ্ট করতে পারে না। যৌন মিলন চলাকালীন শুধু বিছানায় শুয়ে থাকে। বিপরীত কোন প্রতিক্রিয়াই নেই। যা করার স্বামীকেই করে নিতে হয়। আবার অপর কি স্ত্রীরাও দিশেরা কি করে স্বামীকে খুশী করতে হয়। যা আমরা জানতে পারি গুগলে তাদের অনুসন্ধান দেখে। আসলে সব নারীই চায় তাদের স্বামীকে খুশি করতে। আমরাও নারীদের কে সাহায্য করতে প্রকাশ করি নারীদের যৌন জ্ঞান নামক এই বইটি। আশা বোনেরা এই বইটি পড়ে নিজেদের যৌন জ্ঞান বাড়িয়ে নিতে সক্ষম হবে।

যৌন মিলনে স্বামীকে খুশি করতে মেয়েরা নিচের দেওয়া পদ্ধতি গুলোকে অনুসরণ করতে পারেন।

১. রঙিন অন্তর্বাস : কোনও জিনিসের ঢাকনা যদি আকর্ষণীয় হয়, সেই জিনিসটির প্রতি আমাদের লোভ বেড়ে যায়। সে চকোলেটই হোক বা জামার প্যাকেট। তৎক্ষণাৎ সেই জিনিসটি আমরা কিনে ফেলতে চাই। অন্তর্বাসের ব্যাপারটিও তাই। স্ত্রীর সামনে নিজেকে পুরোপুরি মেলে ধরার আগে কয়েক জোড়া আকর্ষণীয় অন্তর্বাস রাখুন স্টকে। দোকানে গিয়ে স্যাটিন বা লেস দেওয়া সুন্দর কয়েকটি অন্তর্বাস কিনে ফেলুন। ম্যাটিরিয়ালের সঙ্গে ভ্যারাইটিতেও রকমফের চাই। জি-স্ট্রিং, থং, বিকিনির মতো অন্তর্বাস বেছে নিন। সেই অন্তর্বাসই স্বামীকে আপনার দিকে চুম্বকের মতো টেনে নিয়ে আসবে।

২. স্ট্রিপটিজ় : নারীর বস্ত্রত্যাগের চেয়ে আর কোনও কিছুতে পুরুষকে উত্তেজিত করা যায় না। তাই সেই পন্থাকেই বেছে নিন। স্বামীকে চমকে দিতে চাইলে খুব সম্মোহনী অন্তর্বাস পরে তার সামনে এসে দাঁড়ান। ধীরে ধীরে বস্ত্রত্যাগ করতে শুরু করুন। আপনার এই উদ্যোগে স্বামীর ঘোর লেগে যাবে। বাকিটা আর বলছি না

৩. উত্তেজকপূর্ণ জায়গায় কামড় দিন : আপনার স্বামী আপনাকে এযাবত কাল আপনার সুখ স্বাচ্ছন্দ্যের দিকে খেয়াল রেখে এসেছেন। এখন আপনার পালা। স্বামীর শরীরের কোন জায়গাগুলো উত্তেজনার হটস্পট, তা জেনে নিতে হবে আপনাকে। ক্রিয়া চলাকালীন সেসব জায়গাতেই ফোকাস বজায় রাখুন। অথবা এই বইতে দেখুন।

৩. স্বামীকে চুম্বন করা : প্রাণের স্বামীকে বশ করার আরো একটা উপায় হচ্ছে নিজ ইচ্ছায় তাকে চুম্বন করা। যে স্ত্রী ভালো কিসার, স্বামীর হৃদয়ে তার জয় জয়কার। কেননা, স্বামী মনে করে ভালো চুম্বন খাওয়াটা হল হটনেসের প্রতীক। যতবেশি হট, ততবেশি হিট। যতবেশি হিট, ততবেশি ওয়েট ।

৪. মাঝরাতে তলব করা : ও গো ওঠো না: এই “ওঠো না” বাথরুমে যাওয়ার সময় ভয় পেয়ে “ওঠো না” নয় । এই ওঠো না সেই ওঠো না, যার জন্য অনেকগুলি রজনী না ঘুমিয়ে কাটিয়েছে আপনার স্বামী। এই ওঠো না উত্তাপের ওঠো না। মোদ্দা কথা হল, স্বামীকে গভীর রাতে ঘুম থেকে তুলে যৌনতা ভরা প্রেমে আলিঙ্গন করা। এতে প্রাণের পুরুষটি বুঝবেন আপনার মিলিত হওয়ার স্বাদ তার চেয়ে কোনও অংশে কম নয়। হলফ করে বলতে পারি, ঘুম-ফুম শিকেয় তুলে তিনিও জেগে উঠবেন নতুন করে।

শেষ কথাঃ বিবাহিত ভাইদেরকে বলি, আপনার স্ত্রীর নিকট ভালো কিছু প্রত্যাশা করতে এই লেখাটি আপনার স্ত্রীকে পড়ান

 

Spread the love

Check Also

যৌন

যৌন নিপীড়নে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের চিত্র

যৌন নিপীড়নের অভিযোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিকস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *