Wednesday , 24 April 2024

দেহের গঠন ঠিক রাখতে চাইলে স্বল্পাহারীকে বিয়ে করুন

সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে, দেহের গঠন ঠিক রাখতে চাইলে স্বল্পাহারীকে বিয়ে করুন, সঙ্গীর রাতের খাবার দেহের ওজন কমানো এবং খাবার গ্রহণের পরিমাণের উপর প্রভাব ফেলতে পারে । স্বামী বা স্ত্রীর মধ্যে কেউ যদি রাতের খাবার অল্প খায়, তবে একজন অন্যজনের মাধ্যমে প্রভাবিত হয়ে অল্প খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলে দেহের বাড়তি ওজন কমাতে পারে ।
এটি এক ধরনের ‘সোশাল মডেলিং’ । এর প্রভাবে মানুষ একা থাকলে যে পরিমাণে খেয়ে থাকেন তার তুলনায় সঙ্গীর সঙ্গে খেতে বসলে কম খাওয়ার প্রবণতা দেখা যায় ।যা দেহের জন্য অনেক ভালো ।

দেহের গঠন ঠিক রাখতে চাইলে স্বল্পাহারীকে বিয়ে করুন

ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ ওয়েলসে’র স্কুল অব সাইকোলজির সহযোগী অধ্যাপক লেনি ভার্টানিয়ান বলেন, “এই ক্ষেত্রে সাধারণত মানুষ খাবার খাওয়ার পরিমাণের ক্ষেত্রে তার  সঙ্গী কী পরিমাণ খাচ্ছে সেই পরিমাণ অনুকরণ করে থাকে ।”
প্রতিষ্ঠানের নির্ধারিত অনুপাত অনুসারে মানুষের খাওয়ার পরিমাণের উপর ভিত্তি করে তৈরি ৩৮টি পর্যবেক্ষণ নিয়ে গবেষণা চালানো হয় । গবেষকরা দেখান খাবার গ্রহণের ক্ষেত্রে জোড়ালোভাবে সামাজিক প্রভাব রয়েছে ।

ভার্টানিয়ান বলেন, “যখন সঙ্গী পরিমাণে কম খায় তখন অপরজনও খাওয়ার পরিমাণে লাগাম টানেন। এতে একা থাকলে যতটা খাওয়া হয় দুজন মিলে খাওয়ার সময় তার তুলনায় কম খাওয়ার সম্ভাবনা থাকে ।” ফলে দেহের ওজন কম থাকে ।
অন্যদিকে সঙ্গী যদি পরিমাণে বেশি খায়, তাহলে স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি খাওয়ার সম্ভাবনা থাকে । কারণ সেক্ষেত্রে নিজের স্বাভাবিক অভ্যাস অনুযায়ী খাবার খাওয়ার স্বাধীনতা থাকে। আর এই প্রভাব বিভিন্ন ক্ষেত্রেই দেখা যায় । যেমন: স্বাস্থ্যকর বা অস্বাস্থ্যকর নাস্তা, ভারী খাবার খাওয়ার সময় এবং শিশুদের সঙ্গে খাওয়া ।
এমনকি সঙ্গীর অনুপস্থিতিতেও এই প্রভাব থাকতে পরে ।যা দেহের জন্য বিরূপ প্রভাব ফেলে।
গবেষকরা জানান, ‍পুরুষদের তুলনায় নারীদের ক্ষেত্রে এই প্রভাব বেশি লক্ষ করা যায় । এটা হওয়ার কারণ হতে পারে, যখন তারা খায় তখন তাদের খাওয়াটাকে অন্যরা কীভাবে দেখছে সেটা নিয়ে নারীরা বেশি সচেতন থাকেন ।
ভার্টেনিয়ান বলেন, “এই মডেলিংটার প্রভাবের ক্ষেত্রে বিশেষ নজর দেওয়া জরুরি। কারণ মানুষের খাবার গ্রহণের ক্ষমতার উপর এটা বিশাল প্রভাব ফেলতে পারে ।”
সোশাল ইনফ্লুয়েন্স জার্নালে এই গবেষণা প্রকাশিত হয় ।

 

জেনে রাখুন কাদেরকে বিয়ে করা বৈধ এবং অবৈধ!

 

আশাকরি আমাদের টিপসগুলো আপনাদের কাজে লাগবে।

যদি সমান্যতম কাজে লাগে তবে একটা ধন্যবাদ দিতে ভুলবেন না।

আর নিয়মিত টিপস পেতে আমাদের সাথে থাকুন।

ফেসবুক পেজ

আমাদের সাইটে কোন প্রকার অশ্লীল আর্টিকেল দেওয়া হয় না।

মূলত যৌন জীবনকে সুস্থ্য, সুন্দর ও সুখময় করে তোলার জন্য জানা অজানা অনেক কিছু তুলে ধরা হয়।

 

 

Spread the love

Check Also

ঠান্ডা পোশাকের ফ্যাশন তপ্ত রোদে

গরম পড়েছে । পথ নেই আর বাঁচবার । ফ্যাশন মাথায় থাক, আরাম চাই আগে । …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *